Latest Event

Welcome To Ta`limul Millat Islamiya Madrasha

আল্লাহভীরু সৎ ও যোগ্য নাগরিক গড়াই আমাদের অঙ্গীকার

আমাদের কথা
সম্মানিত অভিভাবক,
আস্সালামু আলাইকুম ওয়া রাহ্মাতুল্লাহ্
বিজ্ঞানের চরম উৎকর্ষতার বর্তমান যুগে প্রযুক্তির কঠিন চ্যালেঞ্জকে মোকাবেলা করে দেশ, জাতি ও বিশ্বকে নেতৃত্ব দেয়ার পাশাপাশি ইহজাগতিক কল্যাণ ও শান্তি এবং পরকালীন মুক্তির জন্য চাই এমন একটি শিক্ষা ব্যবস্থা, যা হবে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্বলিত ইসরামী ও নৈতকিতার সুষম সমন্বয়ে গঠিত এবং সু-চিন্তিত বিশ্বমানের শিক্ষা কারিকুলাম অনুযায়ী পরিচালিত।
কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, বর্তমানে বাংলাদেমের শিক্ষা ব্যবস্থা “সাধঅরণ শিক্ষা” এবং “মাদরাসা শিক্ষা” এ দু’ধারার কোনটিতেই পরিপূর্ণ সমন্বয় না থাকায় একজন তৈরি হচ্ছে অনেকটা বেপরোয়াভাবে শুধু দুনিয়ার কথঅ চিন্তা করে, আর অপরজন হচ্ছে বর্তমান বিশ্ব ব্যবস্থাকে অনেকাটা পাশ কাটিয়ে। ফলে সমাজ ব্যবস্থায় একই রক্ত-মাংসে  গড়া দু’জন বনী আদমকে দেখা যায় দুটি ভিন্ন চেহারায়। মাদরাসা শিক্ষায় শিক্ষিত সর্বোচ্চ ডিগ্রীধারীকে ও দুনিয়া সম্পর্কে অজ্ঞ, নেতৃত্বের অযোগ্য,সেকেলে হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে। অপর দিকে সাধারণ শিক্ষায় শিক্ষিত জনকে মনে করা হচ্ছে ধর্মজ্ঞান হীন, আল্লাহ, রাসুল ও পরকাল বিমূখ দুনিয়াদার হিসেবে। অথচ আল্লাহর রাসুল হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর নিকট ইসলামী শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে একটি বর্বর জাতি বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ জাতিতে পরিণত হয়েছিল। তাই আমাদের সন্তানদের আল্লাহ্ভীরু, ধার্মিক , পরহেজগার, আধুনিক জ্ঞান-বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পর্কে সচেতন,আধুনিক উত্তরাধুনিক বিশ্ব নেতৃত্বের গুণাবলী সম্পন্ন প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলে ইসলামকে সর্বশ্রেষ্ঠ এবং বিজয়ী আদর্শ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার মত যোগ্য নাগরিক গড়ে তোলার প্রত্যয়ে তা’লীমুল মিল্লাত ইসামিয়া মাদরাসার অগ্রযাত্রা। 

 

Why Choose Ta`limul Millat Islamiya Madrasha?

  আমাদের বৈশিষ্ট্য

গৃহ শিক্ষকের বিকল্প ভাবনায় মাদরাসাতেই পাঠ প্রস্তুত করানো। উচ্চ শিক্ষিত, বিদেশী ডিগ্রীধারী, প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত শিক্ষক মন্ডলী দ্বারা পরিচালিত। ইসলামী চিন্তাবিদ, সুপন্ডিত, দেশ বরেণ্য শিক্ষাবিদগণের তত্ত্বাবধানে একাডেমিক কার্যক্রম পরিচালনা।
ছাত্র, শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষাবিদগণের সমন্বয়ে গঠিত এডভাইজার কাউন্সিল ও মনিটরিং সেল গঠন। বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি বৃত্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ, বিতর্ক প্রতিযোগিতা, কবিতা আবৃত্তি, কুইজ, সংবাদ পাঠ ও শুদ্ধ বাচন ভঙ্গি শিক্ষাদানসহ নানামুখি সহশিক্ষা পাঠক্রমের ব্যবস্থা।
শিক্ষা সফর, খেলাধুলা, ব্যায়ামসহ বিভিন্ন বিনোদন ও সাংস্কৃতিক কার্যক্রমের ব্যবস্থা। ইবাদত, আমল-আখলাকের ব্যাপারে প্রশিক্ষণ কর্মশালা। আরবী ও ইংরেজিতে কথোপকথনে পারদর্শি করে গড়ে তোলার ব্যবস্থা। প্রতি শ্রেণীতে সর্বোচ্চ ৩০ জন ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে ক্লাস বন্টন।
 

Our Teachers